• ২৯৫ যাত্রী-সহ মালয়েসিয়ান এয়ারলাইন্সের বিমান বিধ্বস্ত ইউক্রেনের আকাশে
    ukraine_malaysian_air_crash.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ১৭ জুলাই ২০১৪, বৃহস্পতিবারঃ আজ মালয়েসিয়ান এয়ারলাইন্সের একটি বিমান এ্যামস্টার্ডাম থেকে কুয়ালালামপুর যাওয়ার পথে ইউক্রেনের আকাশসীমায় বিধ্বস্ত হয়েছে। আশঙ্কা করা হচ্ছে ২৯৫ জন যাত্রী ও ক্রু'র সকলেই প্রাণ হারিয়েছেন।

    আজ ট্যুইটারে প্রকাশিত এক বার্তায় মালিয়েসিয়া এয়ারলাইন্স বলেছে, "এমএইস১৭ ফ্লাইটের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছে। সর্বশেষ জ্ঞাত অবস্থান ছিলো ইউক্রেনীয় আকাশসীমা।"

    রাশিয়ার সীমান্ত থেকে প্রায় ৬০ কিলোমিটার দূরে বিধ্বস্ত হয় মালয়েসিয়ার বোয়িং-৭৭৭ বিমানটি। আজ নেদারল্যাণ্ডসের এ্যামস্টার্ডাম থেকে মালয়েসিয়ার কুয়ালা লামপুরের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়ে স্থানীয় সময় বিকেল পাঁচটা কুড়ি মিনিটে রুশ আকাশসীমায় প্রবেশ করার কথা ছিলো এটির। কিন্তু তার আগেই বিমানটি মর্মান্তিক 'দুর্ঘটনা'য় নিপতিত হয় পূর্ব ইউক্রেনের বিদ্রোহী দনেত্‌স্ক রিপাবলিকে।

    বিমানটির বিধ্বংসিত হওয়ার সুনির্দিষ্ট কারণ এখনও জানা যায়নি। গৃহযুদ্ধরত ইউক্রেনের সরকার ও বিদ্রোহী উভয় পক্ষই এতে নিজেদের সংশ্লিষ্টতার কথা অস্বীকার করেছেন। ইউক্রেনীয় বার্তা সংস্থা ইণ্টারফ্যাক্স-ইউক্রেন সরকারের মুখপাত্র আন্তন গেরাশ্চেঙ্কোকে উদ্ধৃত করে জানায়, ১০ কিলোমিটার উচ্চে ভ্রমণরত বিমানটির প্রতি ভূমি থেকে আকাশ মুখী ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়া হয়েছে। তবে, তাঁর বক্তব্যের সত্যাসত্য নিশ্চিত হওয়া যায়নি এখনও।

    সম্প্রতি ঘোষিত স্বাধীনতার লক্ষ্যে যুদ্ধে লিপ্ত হওয়া দনেত্‌স্ক প্রদেশের 'প্রধানমন্ত্রী' আলেক্সান্দ্র বোরোদে এ-ঘটনাকে কেন্দ্রীয় সরকারের একটি 'প্ররোচনা' আখ্যায়িত করেছেন বলে জানিয়েছে রুশ টেলিভিশন আরটি। বিদ্রোহীদের দিকে অভিযোগের আঙ্গুল তোলার প্রতিবাদ করে তাঁর মুখপাত্র সের্গেই কাভ্‌তারাদ্‌জ়ে দাবি করেন, ১০ কিলোমিটার উঁচুতে ছোঁড়ার মতো ক্ষেপণাস্ত্রই তাঁদের কাছে নেই। তিনি বলেন, "আমাদের শুধু বহনযোগ্য ক্ষেপণাস্ত্র রয়েছে যার বিস্তার ৩-৪ কিলোমিটার পর্যন্ত।"

    উল্লেখ্য, এ-বছরের মার্চে মালিয়েসিয়ান এয়ারলাইন্সের একটি বিমান আকাশ থেকে হারিয়ে গিয়েছিলো। এখনও পর্যন্ত সেটির কোনও সন্ধান পাওয়া যায়নি।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন