• ৩০টি স্কুলের খেলার মাঠ বিক্রিঃ পরামর্শকদের কথা শুনলেন না এডুকেশন সেক্রেট্যারী গৌভ
    Gove.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ১৭ অগাস্ট ২০১২, শুক্রবারঃ  এডুকেশন সেক্রেট্যারী মাইকেল গৌভ নিজে স্বীকার করেছেন যে, ২০১০ সালের মে মাস থেকে এ-পর্যন্ত তিনি ২১টি স্কুলের খেলার মাঠ বিক্রি অনুমোদন করেছেন এবং অন্ততঃ পাঁচ বার তিনি ‘স্কুল প্লেয়িং ফীল্ডস এ্যাডভাইজরী প্যানেল’-এর বিরোধিতা অবজ্ঞা করে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। গত কাল দৈনিক টেলিগ্রাফ তার অনুসন্ধানের ফল প্রকাশ করে জানায় যে, মাইকেল গৌভ আসলে মোট ৩০টি স্কুলের খেলার মাঠ বিক্রি অনুমোদন করেছেন।

    এডুকেশন সেক্রেট্যারী মাইকেল গৌভের জেষ্ঠ্যতম সরকারী কর্মকর্তার কাছে চিঠি লিখে লেবার পার্টি জানতে চেয়েছে কেনো এ্যাডভাইজরী প্যানলের পরামর্শ অবজ্ঞা করা হলো, যখন কি-না ঐ প্যানেলের সদস্য হওয়ার সুবাদে সংশ্লিষ্ট কাউন্সিলের লীডারগণ বিক্রি বিষয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

    উল্লেখ্য, বিধানুসারে ইংল্যাণ্ডের স্কুলের খেলার মাঠ বিক্রির আবেদন অনুমোদন করেন এডুকেশন সেক্রেট্যারী, কিন্তু তার আগে এগুলো বিবেচনা করে অনুমোদন বা অননুমোদন করে একটি স্বতন্ত্র এ্যাডভাইজরী প্যানেল। কিন্তু প্যানেল সদস্যদের পরিচয় প্রকাশ করা হয় না এবং তাঁদের অনুসন্ধানে প্রাপ্ত তথ্য প্রকাশ করা হয় না।

    ‘ফ্রীডম অফ ইনফর্মেশন’-এর অধীনে এ-মাসের প্রথম দিকে দৈনিক টেলিগ্রাফ জানতে চাইলে মাইকেল গৌভ প্রকাশ করেন যে, তাঁর এডুকেশন ডিপার্টমেন্ট ২০১০ সালের মে মাস থেকে ২১টি স্কুলের খেলার মাঠ বিক্রি অনুমোদন করেছে।

    এদিকে, লণ্ডন অলিম্পিকে ব্রিটেইনের সাফল্যের সূত্র ধরে স্কুলে শিশুদের খেলাধূলাকে উৎসাহিত করার উদ্দেশ্য দ্য ডেইলি ডেলিগ্রাফ তার শুরু করা ‘কীপ দ্য ফ্লেইম এ্যালাইভ’ আন্দলনের অংশ হিসেবে অনুসন্ধান করে দেখিয়েছে যে বাস্তবে ৩০টি স্কুলের খেলার মাঠ বিক্রি অনুমোদন করেছেন গৌভ।

    এ-বিষয়ে গৌভের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে তিনি দুঃখ প্রকাশ করে জানান যে, তাঁর বিভাগীয় কর্মকর্তারা তাঁকে ভুল সংখ্যা সরবরাহ করার কারণে তিনি ফ্রীডম অফ ইনফর্মেশনের অধীনে দ্য ডেইলি টেলিগ্রাফকে ভুল তথ্য দিয়েছেন।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন