• ৩০ জুন ধর্মঘটঃ পেনশন-কাটা’র বিরুদ্ধে শিক্ষকদের সাথে সরকারী কর্মচারীরাও
    PCS-Leader.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি, ১৫ জুন ২০১১, বুধবারঃ  শিক্ষক ও লেকচারারদের ইউনিয়নগুলো সরকারের পেনশন-কাটার বিরুদ্ধে আগামী ৩০শে জুন ধর্মঘটে যাবার যে-সিদ্ধান্ত মঙ্গলবারে গ্রহণ করেছে, তার সাথে সমান পদক্ষেপে চলে বৃহত্তর আঘাত হানার জন্য সরকারী কর্মচারীদের ইউনিয়ন পিসিএস সদস্যরা ধর্মঘটের পক্ষে বুধবার ভৌট দিয়েছে। এর ফলে আগামী ৩০ জুন সারাদেশে মোট সাড়ে সাত লাখ (৭৫০,০০০) শিক্ষক ও সরকারী কর্মচারী ধর্মঘটে নেমে বস্তুতঃ দেশকে বহুলাংশে অচল করে দিবে।

    পিসিএস'র সাধারণ সম্পাদক মার্ক সেরয়োটকার বলেন, সরকারী কর্মচারীদেরকে বছরে আট ঘন্টা বেশি কাজ করতে বলা হয়েছে এবং পেনশনে তাদের অবদান তিন বার বৃদ্ধি করা হয়েছে, অথচ তারা দেখছেন শেষ পর্যন্ত তাদের পাওনা পেনশনকে অর্ধেক করে দেয়া হয়েছে। তিনি একে ‘দিনে-দুপুরে ডাকাতি’ বলে অভিহিত করেন।

    ধর্মঘট কী অভিঘাত সৃষ্টি করতে পারে বর্ণনা করতে গিয়ে তিনি দাবী করেন, দেশের প্রতিটি মানুষ অনুভূব করবেন এই ধর্মঘটের এবং পরবর্তীতে আসন্ন মাস-ব্যাপী ওভারটাইম নিষেধাজ্ঞার প্রভাব। তিনি বলেন, ‘স্কুল-কলেজ বন্ধ থাকবে, জব-সেন্টার বন্ধ থাকবে, ড্রাইভিং লাইসেন্স ইস্যু করা হবে না, জলবন্দর ও বিমানবন্দরে দীর্ঘ লাইন হবে।’

    ইউনিয়ন নেতা যুক্তি দেখিয়ে বলেন, ‘আমি মনে করি না নিজেকে রক্ষার চেষ্টা করা অবাক হবার মতো কোনো ঘটনা। কাউন্সিল কর্মী, স্বাস্থ্যকর্মী ও শিক্ষকরা যেহেতু একই আক্রমণের শিকার, তাই তাদের সাথে সম-স্বার্থ খুঁজে নিজেকে নিজে রক্ষার মধ্যে একটা স্পষ্ট যুক্তি আছে।’

    এদিকে সরকারের পক্ষ থেকে সরকারী কর্মচারীদের এ-ধর্মঘটের সিদ্ধান্তকে দায়িত্বহীন বলে মন্তব্য করা হয়েছে। তবে লেবার নেতা এড মিলিব্যান্ড ধর্মঘটের বিষয়টি দুপক্ষেরই ব্যর্থতা বলে উল্লেখ করেন। তিনি সরকারকে কথার ফুলঝুরি না ছড়িয়ে আলোচনার টেবিলে বসা উচিত বলে মন্তব্য করেন।

    যদিও আগামী ২৭ জুন সরকার ও ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দের মধ্যে আলোচনা বৈঠক নির্ধারিত করা আছে, কিন্তু সেরয়োটকা বলেন, আপোস আলোচনা এ-পর্যন্ত ‘একটি পরিহাসে’ পরিণত হয়েছে। তিনি বলেন, ‘এ-পর্যন্ত সরকারের দ্বিতীয় কোনো চিন্তা আছে বলে কোনো ইঙ্গিত মেলেনি। প্রতিবারই তারা আমাদেরকে যা বলেছেন, তাহলো তারা আপোস করবেন না’।

    তিনি জানান, সমন্বিত ধর্মঘটের এটিই প্রথম পদক্ষেপ। এ-ধর্মঘটের মুখে সরকার দাবী না মানলে আগামী অক্টোবরে তারা অন্ততঃপক্ষে চল্লিশ লক্ষ লোকের ধর্মঘট সংগঠিত করবেন।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন