• ‘তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধ’র সুস্পষ্ট উল্লেখ ভাষ্যেঃ ইরান অগ্রাঘাত করতে পারে ইসরায়লের উপর
    Brig-Gen-Hajizadeh.jpg

    ইউকেবেঙ্গলি - ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১২, রোববারঃ  ইরানের ইসলামিক রেভ্যুলিউশান গার্ডস কর্পস (আইআরজিসি)-এর এ্যারোস্পেইস ডিভিশনের কমাণ্ডার ব্রিগেইডিয়ার জেনারেল আমির-আলি হাজিজাদেহ্‌ আজ রোববার সতর্কতা উচ্চারণ করে বলেছেন যে, ইসরায়েল ইরানকে আক্রমণ করলে তা তৃতীয় বিশ্বযুদ্ধের সূচনা। ইসরায়েল আক্রমণের চূড়ান্তকরণের দিকে গেলে দেশটির উপর ইরানের অগ্রাঘাত শুরু হয়ে যাবে বলে তিনি জানান।

    ইরানের আরবিভাষী প্রেস টিভি, রুশ সংবাদ-মাধ্যম আরটি ও চৈনিক সংবাদ-সংস্থা শিনহুয়া-সহ বিশ্বের বিভিন্ন সংবাদ-মাধ্যম ইরানী এই সেনাপতির হুঁশিয়ারিকে গুরুত্বের সাথে প্রচার করেছে। উল্লেখ্য, এই প্রথম বারের মতো একটি দেশের একজন গুরুত্বপূর্ণ সামরিক ব্যক্তিত্ব সুস্পষ্টভাবে তৃতীয় যুদ্ধের সম্ভাবনার কথা উল্লেখ করলেন। 

    ইসরায়েলের উপর ইরানের করা আঘাত কী রকম হতে পারে, তার বর্ণনায় ব্রিগেইডিয়ার জেনারেল হাজিজাদেহ্‌ বলেন, তা ইসরায়েল ‘কল্পনাও করতে পারবে না।’ তিনি বলেন, তিনি বিশ্বাস করেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গ ছাড়া ইসরায়েল ইরান আক্রমণের সাহস পাবে না। তবে তিনি জানান, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র যদি ইসরায়লের সাহায্য এগিয়ে আসে, ইরান দুটোর উপরই আঘাত হানবে।

    জেনারলে হাজিজাদেহ্‌ বলেন, ‘ইরান সুনিশ্চিতভাবে বাহরাইন, কাতার ও আফগানিস্তানে মার্কিন ঘাঁটিসমূহের উপর আঘাত হানবে।’ তিনি বলেন, ‘আমাদের কাছে এ-সমস্ত ঘাঁটি মার্কিন ভূমির সমান।’

    যুদ্ধ শুরু হলে ‘এ-অঞ্চলে কোনো নিরপেক্ষ দেশ থাকবে না’, তারা হয় ইরানের পক্ষে না হয় বিপক্ষে অবস্থান নেবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

    তার আগে, গতকাল শনিবার ইরানের আইআরজিসির কমাণ্ডার মেইজর জেনারেল মোহাম্মদ আলি জাফারি বলেন, শেষ পর্যন্ত যুদ্ধ হবে। তবে কখন ও কোথায় তা শুরু হবে, তা উল্লেখ করেননি ইরানী জেনারেল।

    আজ জেনারেল জাফারির কথাই পুনরুচ্চারণ-করা অপর এক কমাণ্ডার হোসেইন সালামিকে উদ্ধৃত করে ইরানের সরকারী বার্তা-সংস্থা ইরনা জানায়, ‘ইরানের বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ নিলে ইরান জায়নবাদী ক্ষমতাকে নিশ্চিহ্ন করে দেবে।’

    উল্লেখ্য, ইসরায়েল মনে করে ইরান বেসামরিক উদ্দেশ্যে পারমাণবিক সক্ষমতা অর্জনের চেষ্টা করছে বললেও বাস্তবে তারা পারমাণবিক অস্ত্র তৈরীর দিকেই যাচ্ছে।

    গত ২রা সেপ্টেম্বর ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ান নেতানিয়াহু মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র-সহ বিশ্ব-শক্তি-সমূহকে ইরানের জন্য একটি ‘রেড লাইন’ এঁকে দেবার ক্ষেত্রে ব্যর্থ হবার অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, ‘যতোক্ষণ না পর্যন্ত ইরান এই রেড লাইন ও এই দৃঢ়তা স্পষ্ট দেখবে, ততক্ষণ পর্যন্ত সে তার পারমাণবিক কর্মসূচি এগিয়ে নেয়া বন্ধ করবে না। ইরানকে কোনোক্রমেই পারমাণবিক অস্ত্র অর্জন করতে দেয়া যাবে না।’

    উত্তরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা কোনো রেড-লাইন নির্দিষ্ট করতে অস্বীকৃতি জানান। গত ১৪ই সেপ্টেম্বর তিনি বলেন, কোনো ধরনের ‘রেড-লাইন বা ডেডলাইন’ দেয়া যাবে না, কারণ, এখনও ‘কূটনীতির জন্য স্থান ও সময় বর্তমান রয়েছে।’

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন