• বাগদাদে বুশকে জুতো ছুঁড়ে মারা সাংবাদিক মুক্তি পেলেন

    গত বছর বাগদাদে এক সাংবাদিক সম্মেলনে জর্জ বুশকে জুতো ছুঁড়ে মারা সাংবাদিক মুনতাদার আল-জায়েদীকে (৩০) মঙ্গলবার মুক্তি দেয়া হয়েছে। সোমবার মুক্তি পাবার কথা থাকলেও প্রশাসনিক দীর্ঘসূত্রিতার কারণে এক দিন বিলম্বে কারাগারের বাইরে এলেন তিনি। মুক্তিলাভের পর সংবাদ-মাধ্যমের সাথে আলাপকালে কারা-অভ্যন্তরে নির্যাতিত হবার অভিযোগ আনেন জায়েদী। এছাড়াও কারাগারে তাকে যে-ধরনের চিকিৎসা দেয়া হয়েছিলো সে-ব্যাপারে তথ্য-গোপনের দায়ে প্রধানমন্ত্রী নূরী আল মালিকীর প্রতি দুঃখ প্রকাশের আহবান জানিয়েছেন জায়েদী।

    জায়েদী জানান কারাবাসের প্রথম দিনগুলোতে তাকে লাঠি ও লোহার ডান্ডা দিয়ে পেটানো হয়েছে, চাবুক মারা হয়েছে এবং বৈদ্যুতিক শক দেয়া হয়েছে। এছাড়াও জেলখানাতে থাকাকালে পানিতে চুবিয়ে নির্যাতিত করার হয়েছিলো বলেও অভিযোগ করেন জায়েদী। কারাগার থেকে বেরিয়ে আসার পরে বেশ কয়েক-জন পার্লামেন্টারিয়ান জায়েদীকে স্বাগত জানান; এ-সময় জায়েদীর ভাই উদে আল-জায়েদী সেখানে উপস্থিত ছিলেন। বর্তমান পরিস্থিতি বর্ণনা করে জায়েদী বলেন, আমি আজ মুক্ত কিন্তু আমার ঘর এখন পর্যন্ত একটি কারাগার হয়ে আছে। কারাগার থেকে বের হবার কিছু পরে জায়েদীকে ইরাকী পতাকা গায়ে জড়ানো অবস্থাতে আল বাগদাদিয়া টেলিভীশন ভবনের সামনে অবস্থান করতে দেখা যায়। উল্লেখ্য, গ্রেফতার হবার আগে জায়েদী আল বাগদাদিয়াতে সাংবাদিক হিসাবে কাজ করতেন। মঙ্গলবার আল বাগদাদিয়া কর্তৃপক্ষ জানায় জায়েদীর সম্মানে কমপক্ষে তিনটি ভেড়া জবাই দেয়া হয়েছে। এদিকে ছোট ভাইয়ের মুক্তির ব্যাপারে মন্তব্য করে উদে আল জায়েদী বলেন, আশা করি [জর্জ] বুশ আমাদের আনন্দ দেখতে পাচ্ছেন। প্রেসিডেন্ট বুশ যখন তারা জীবন-খাতার পাতাগুলো উল্টাবেন তখন তিনি প্রত্যেক পাতাতে মুনতাদার আল-জায়েদীর জুতো দেখতে পাবেন।

    উল্লেখ্য, জায়েদীকে যাতে বীরের মত সম্বর্ধনা না দেয়া হয় সে-ব্যাপারে সরকারের পক্ষ থেকে জনগনের প্রতি আহবান জানানো হয়েছে। একজন বিদেশী রাষ্ট্র-প্রধানের উপরে হামলা চালানোর অভিযোগে জায়েদীকে প্রথমে তিন বছরের কারাদন্ড দেয়া হয়েছিলো। তবে রায়ের বিরুদ্ধে আপীল করার পরে এই দন্ড দুই বছর হ্রাস করা হয়। গত বছরের ডিসেম্বরে বুশকে জুতো ছুঁড়ে মারার সময় জায়েদী বলেছিলেন, এই কুকুর, এই হচ্ছে তোমার জন্য বিদায় চুম্বন। টেলিভীশনে এ-ঘটনা সম্প্রচারিত ঘটানোর সাথে-সাথে আরব দেশগুলো থেকে শুরু করে সারা বিশ্বে আলোচিত এক ব্যক্তিতে পরিনত হন জায়েদী। এমনকি জায়েদী যে-ধরনের জুতো ছুঁড়েছিলেন সে-রকম জুতোর চাহিদা ব্যাপকভাবে বেড়ে যায় আরব অঞ্চলে।

    ১৫ সেপ্টেম্বর ২০০৯

পাঠকের প্রতিক্রিয়া

পা‌পের শস্তি এরকম হয়।

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন