• আবার এসেছে ফিরে
    মাসুদ রানা

    [বগুড়ার কৃষক শুকুর আলী ও তাঁর পুত্র সিজান হোসেন, যাঁদেরকে আমি চিনি না, কিন্তু রক্ত সম্পর্কিত মনে করি, সেই পিতা-পুত্রের মৌবাইল ফৌনে একত্রে রাজনৈতিক চুটকি শোনার দায়ে পুলিসের হাতে গ্রেফতারিত হওয়ার প্রতিবাদে আমি লিখেছি এই কবিতাটি। কবিতাটি উৎসর্গ করছি তাঁদেরই মতো গ্রাম ও নগরীর প্রান্তিক মানুষদের প্রতি, যাঁদের আমি আমার রক্ত ও নাড়ি হিসেবে মানি।]
    - মাসুদ রানা

    আবার এসেছে দেশে পুরনো সে-বাকশাল,
    পাল্টেছে বিধি-বিধান মানুষ আর দিনকালঃ
    দেখতে মানা, শুনতে মানা, হাসতে মানা।
    বোবা হও, বধির হও, হও তুমি চক্ষুকানা!

    গ্রামদেশে কিষাণ পিতা পুত্রসহ বন্দী হলো,
    মোবাইল ফৌনে কীসব যেনো শুনেছিলো।
    শুনে ওরা হেসেছিলো অট্টহাসি বিশ্রী দাঁতে,
    তাতেই যেনো আঘাত লাগে কারও আঁতে।

    পুলিস বলেঃ এ্যাই ব্যাটারা, হাসলি কেনে?
    হাসিনাকে ব্যঙ্গকরা ফোনেভরা চুটকি শুনে?

    আপাততঃ জেলহাজতে থাক কয়েক সপ্তা',
    এর আগে চাবুক মেরে বানাবো যে কোপ্তা!
    তা না হলে ক্রসফায়ার আছে জানিস আইনে
    সবগুলোয় দেবো মেরে বেঁধে এক লাইনে!

    শোন ব্যাটারা চেতনাহীন রাজাকারের বাচ্চা,
    বাঁচবি যদি হয়ে ওঠ 'বাকশালীগার' সাচ্চা!

    রোববার ১৯ অক্টোবর ২০১৪
    নিউবারী পার্ক, এসেক্স, ইংল্যাণ্ড

    সংবাদ সূত্রঃ http://www.ittefaq.com.bd/wholecountry/2014/10/19/4083.html

আপনার মন্তব্য

এই ঘরে যা লিখবেন তা গোপন রাখা হবে।
আপনি নিবন্ধিত সদস্য হলে আপনার ব্যবহারকারী পাতায় গিয়ে এই সেটিং বদল করতে পারবেন