সংবেদন

গোলাম আযম আটকঃ ‘কী লয়ে বিচার!’

মাসুদ রানা

লণ্ডনের বাংলা সঙ্গীতশিল্পী শাহীনূর হীরক ফৌন করে জানতে চাইলেন, ‘গোলাম আযমকে নাকি ব্রিক লেইনের সঙ্গীতার সামনে থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে’? শুনে তো অবাক! গোলাম আযম লণ্ডনে? তাও ব্রিক লেইনের মিউজিক স্টৌর সঙ্গীতার সামনে? অভাবনীয়!

ভুল শুনেছিলেন হীরক। গোলাম আযমকে আটক করা হয়েছে ঢাকায়। যুদ্ধাপরাধের মামলায় অভিযুক্ত গোলাম আযম ঢাকায় আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করেছিলেন। বিচারকগণ আবেদন না-মঞ্জুর করে তাঁকে কারাগারে পাঠিয়েছেন। ‘অসুস্থতা’র কারণে তাঁকে কারা-কর্তৃপক্ষ শেষ পর্যন্ত হাসপাতালে পাঠায়। ...»

ডিজিট্যাল বাংলাদেশঃ রাজনৈতিক স্বরূপ সন্ধানে

মাসুদ রানা

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণা দিয়েছিলেন “ডিজিট্যাল বাংলাদেশ” তৈরি করার। এর দ্বারা তিনি কী বুঝিয়েছিলেন, তা অনেকের কাছেই তখন স্পষ্ট হয়নি। এমনিতেই, ডিজিটায়ন বা ডিজিটাইজেশন একটি জটিল বিষয়।

ডিজিট্যাল অংক ...»

শেখ হাসিনার সাফল্যের ষ্ট্র্যাটেজিঃ একটি সরল হাইপোথেসিস

মাসুদ রানা

আমি শেখ হাসিনার রাজনীতির সমর্থক নই, কিন্তু তিনি যে তাঁর রাজনৈতিক কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠা ও সুরক্ষায় ষ্ট্র্যাটেজিকভাবে সফল, তা স্বীকার করতে আমার কোনো সঙ্কোচ নেই। আমি নিরাসক্ত বিচারে মনে করি, স্বাধীনতা-উত্তর বাংলাদেশের রাজনীতির ইতিহাসে শেখ মুজিবুর রহমান ছিলেন সবেচেয়ে ব্যর্থ, আর শেখ হাসিনা হচ্ছেন সবচেয়ে সফল রাজনীতিক। উদাহরণ স্বরূপ বলা যায়ঃ ...»

অনশন ধর্মঘটঃ শ্রেণী-সংগ্রামের ভ্রান্ত পদ্ধতি

মাসুদ রানা

ঈদের চাঁদে কলঙ্ক
বাংলাদেশে এবার যেনো ঈদের চাঁদ উঠেছে বিশাল কলঙ্কের দাগ নিয়ে। উৎসবের আয়োজন ছাপিয়ে, চাঁদরাত ২৮শে জুলাই থেকে, ঢাকার তোবা ফ্যাশনের পোশাক শ্রমিকেরা অনশন করছেন। তাঁরা অনশন করছেন মালিকের কাছ থেকে তাঁদের তিন মাসের বকেয়া মজুরি ও বৌনাস আদায়ের লক্ষ্যে।

৩১শে জুলাই আমি তোবা ফ্যাশন কারখানায় গিয়েছিলাম অনশনরত সংগ্রামী শ্রমিকদের দেখার জন্য। দেখলাম, অনেকেই দুর্বল হয়ে পড়েছেন। অনেকেরই বিভিন্ন উপসর্গ দেখা দিয়েছে। ...»

এক হিব্রুভাষী আরবের আত্মোপলব্ধি

মাসুদ রানা

আজ সকালে যথারীতি দ্য গার্ডিয়ানের রিপৌর্ট ও ফীচারগুলোর শিরোনাম দেখছিলাম আর পাঠের অগ্রাধিকার বিবেচনা করছিলাম। আমি সাধারণতঃ রিপৌর্টের পর ফীচারে যাই। কিন্তু আজ কেনো জানি একটি আত্মজৈবনিক ফীচারে চোখ আটকে গেলে আর নড়তে পারলাম না।

ফীচারের শিরোনাম "হোয়াই আই হ্যাভ টু লীভ ইজরায়েল"। লেখকের নাম সাঈদ কাশুয়া। একজন আরব ইসরায়েলী হিব্রু লেখক। তাঁর লেখাটা এক ঠায় বসে যেনো এক নিঃশ্বাসে পড়ে ফেললাম। ...»